Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest

নামাজ পড়ার সময় আমি সুরা আসর মাস্ট পড়ি। এর একটা কারন মাত্র তিন আয়াতের সুরা আসর পবিত্র আল কোরানের দ্বিতীয় ক্ষুদ্রতম সুরা, তাই মনেরাখা সহজ আর সময়ও কম লাগে। আরেকটা কারন হল, সুরা আসর আমার সবচেয়ে প্রিয় সুরা। বিলিভ মি, আমার মনেহয় মাত্র তিন লাইনের এই সফট ওয়ার্নিং টাইপ সুরায় দুনিয়া ও পরকালের প্রায় সবকিছুই কাভার করা হয়ে গেছে আর সুরাটা সব যুগে সব কন্টেক্সটেই স্যুট করে।

করোনা ভাইরাসের এই মহামারীর সময়ও যখন পড়ি, এক বিন্দুও বেমানান লাগে না বরং মনেহয় সুরাটা বুঝি এই দুঃসময়ের কথা ভেবেও নাজিল হয়েছিল!

ফার্স্ট আয়াতটাই দেখেন,
🕐সময়ের শপথ!
(সময়ের চেয়ে রহস্যময় আর কী কিছু হয়? সময় মানেই তো অতীত-বর্তমান-ভবিষ্যত, সব কিছু। আর এই আয়াতের কারনেই আমার সবসময় মনেহয় এই সুরার কাভারেজ সময়ের মতই সুবিশাল! করোনা ভাইরাসের কারনে এই মুহুর্তে সত্যি আমরা খুব বাজে একটা সময়ই পার করছি এবং যতই দিন যাচ্ছে আমরা সুনামি, গ্লোবাল ওয়ার্মিং, মহামারীর মত একের পর এক নিত্যনতুন সব সমস্যা আর বিপদ আপদে পরছি!)

সেকেন্ড আয়াতে স্ট্রেইট ফরোয়ার্ড আল্লাহ পাক বলছেন
🔥নিশ্চয়ই মানুষ ক্ষতি/সমস্যাগ্রস্ত।
(এই আয়াতের ব্রডার মিনিং/কন্টেক্সট বাদ দিয়ে যাস্ট ভেবে দেখুন, সামান্য একটা ভাইরাসের কারনে আমরা এই মুহুর্তে কী পরিমান সমস্যায় আছি আর কী পরিমান ক্ষতি হচ্ছে আমাদের! এই লাইনটা অনুধাবন করতে গেলে চমকে শিউরে উঠতে হয়, যেন আল্লাহ পাক ঠিক এই সময়ে আমাদের এই অপরিসীম দুর্ভোগ আর দুর্দশা দেখেই একথা বলছেন!)

আবার থার্ড আর লাস্ট আয়াতেই মহান আল্লাহ পাক এই দুরবস্থার সমাধানও ইংগিত দিচ্ছেন
🙏তবে তারা বাদে,
যারা বিশ্বাস এনেছে, আর ভালো কাজ করেছে
(এখানে আল্লাহ-রাসুল-ইসলামের উপর বিশ্বাসের কথা ছাড়াও এই মহামারীর সময় যারা হাদিসের নির্দেশনা মতে মহামারী দূর না হওয়া পর্যন্ত নিজ নিজ এলাকায় নিজেদের আটকে রাখবে তাদের কিন্তু আসলেই বিপদ কম। বিজ্ঞান আর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও একই কথা বলছে।)

এবং একে অপরকে সত্য/সঠিক পথের পরামর্শ দিয়েছে
(ভেবে দেখুন, এই মহামারীর সময় সত্যি যারা অযথা গুজব না ছড়িয়ে কিভাবে কি করলে নিরাপদ আর সুস্থ থাকা যাবে সেই পরামর্শ নিজেরা মানে আর অন্যদের সাথেও শেয়ার করে, তারা কিন্তু আসলেই অপেক্ষাকৃত কম বিপদগ্রস্ত!)

এবং একে অপরকে ধৈর্য ধরার উপদেশ দিয়েছে।
(সত্যিই তো, ভেবে দেখুন, এই দুঃসময়ে অনেকেই ঘরে বসে বসে অস্থির হয়ে উঠছেন। অথচ সময়টা এখন ধৈর্য ধরবার। তাই যারা নিজেরা ধৈর্য রাখতে পারছে আর অন্যদেরও আরেকটু ধৈর্য ধরতে পরামর্শ আর উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে, তাদের আক্রান্ত হবার ঝুকি কিন্তু সত্যিই কম!)

একারণেই বললাম যে, মাত্র তিন লাইনে এই সুরায় দুনিয়া ও পরকালের প্রায় সবকিছুই কাভার করা হয়ে গেছে তার উপর আবার সুরাটা সব যুগে সব কন্টেক্সটেই স্যুট করে। সুবাহানাল্লাহ!

Delwar Hossain Khan (Del H Khan)
দেলোয়ার হোসেন খান (ডেল এইচ খান)

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *